1. dailysurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
  2. editor@dailysurjodoy.com : Daily Surjodoy : Daily Surjodoy
  3. towhid472@gmail.com : Towhid Ahmmed Rezas : Towhid Ahmmed Rezas
রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আমের দাম বেড়েছে; হতাশা কেটেছে আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আমের দাম বেড়েছে; হতাশা কেটেছে আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১০ জুলাই, ২০২১, ৬.১২ পিএম
  • ৩৪ বার পঠিত

রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আমের দাম বেড়েছে; হতাশা কেটেছে আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের

রোস্তম আলী: রংপুর জেলা প্রতিনিধি

রংপুরের বিখ্যাত ‘হাড়িভাঙ্গা আমের’ বাম্পার ফলন হয়েছে এ বৎসর। জুনের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে হাড়িভাঙ্গার দখলে রয়েছে রংপুরের বাজারগুলো। তবে কঠোর লকভাউনে দূরপাল্লার বাস, ট্রেনসহ ব্যক্তিগত যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় হাড়িভাঙ্গা আমের মূল উৎস মিঠাপুকুর উপজেলার পদাগঞ্জে আমের বাজারে ধস নেমেছিল। পাইকারি গ্রাহক না থাকায় ব্যবসায়ীরা দিশেহারা হয়ে পড়েছিল।
তবে লকডাউনে বাঁধাহীনভাবে আম পরিবহন করতে পারায় সেই সংকট কেটে গেছে। গত পাঁচ দিন থেকে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ব্যবসায়ীরা আম কিনতে আসায় দাম বেড়ে দ্বিগুণ। হতাশা ছাপ কাটিয়ে হাসির মুখ দেখছে পদাগঞ্জ এলাকার আম চাষিরাও।

শুক্রবার (৯ জুলাই) বেলা ১২টার দিকে মিঠাপুকুরের পদাগঞ্জ আম বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কাঁচা আম (সর্বোচ্চ ভালো) এখন বাজারে ২৪’শ টাকা প্রতি মণ, মাঝারি ১৮’শ থেকে ২ হাজার, ছোট সাইজের ১১’শ থেকে ১৬’শ টাকা। পাকা আম (বড় সাইজ) ১১’শ থেকে ১২’শ টাকা। মাঝারি ৮’শ থেকে এক হাজার টাকা। এছাড়া প্রকারভেদে বিভিন্ন ধরনের দাম রয়েছে। কিন্তু গত চার দিন আগেও এই বাজারে কাঁচা আম (ভালোটা) ১৪’শ টাকা থেকে ১৬’শ টাকা মণ বিক্রি হয়েছে।

আর ছোট সাইজ ও পাকা আমের দাম ছিল ৮’শ থেকে ১১’শ টাকা।
মৌসুমী আম ব্যবসায়ীরা বলেন,কঠোর লকডাউনের কথা শুনে গ্রাহক না আসায় মৌসুমি আম ব্যবসায়ী ও বাগান মালিকদের পথে বসার উপক্রম হয়েছিল। তারা আরও বলেন, গত চার দিন আগে বাগানে আম পাকা শুরু হওয়ায় লোকসান করে আম বিক্রি করতে হয়েছে।

তবে কয়েকদিন থেকে বাইরের পাইকাররা আসায় দ্বিগুণ দামে আম বিক্রি করতে পারছি আমরা।
খোড়াগাছ এলাকার আম চাষি রবিউল জানান, পাকা আম মাত্র ৬’শ থেকে ৮’শ টাকা দরে বিক্রি করেছি। আর কাঁচা আম (ভালো মানের) ছিল ১৩’শ থেকে ১৫’শ টাকা। যেটার দাম হওয়ার কথা ছিল সাড়ে তিন হাজার টাকা। এখন পাইকাররা আসতে শুরু করেছে। আমের দামটাও বেড়েছে আর আমাদের হতাশা কেটে গিয়েছে।

অনলাইনে আম ব্যবসায়ী রাকিবুল হাসান বলেন, আমরা অনলাইনে আমের অর্ডার নিয়ে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে আম পাঠাতাম। ভেবেছিলাম লকডাউনে কুরিয়ার সার্ভিস বন্ধ থাকবে বা আম পাঠানো সমস্যা হবে। কিন্তু লকডাউনেও কুরিয়ার সার্ভিসগুলোর মাধ্যমে সহজেই দেশের বিভিন্ন জেলায় আম পাঠাতে পাড়ছি। তাই ভালো মূল্যও পাচ্ছি আমরা।

রংপুর কৃষি বিপণন বিভাগের উপ-পরিচালক আনোয়ার হোসেন জানান, রংপুরের মিঠাপুকুরে হাড়িভাঙ্গা আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে লকডাউন থাকায় চাষি ও ব্যবসায়ীরা কিছুটা হতাশ হয়েছিল। তবে লকডাউনে আমের গাড়ি যেন কোথাও হয়রানি বা আটক না হয় সে বিষয়টি আমরা নিশ্চিত করেছি।

এছাড়া আমরা আম পরিবহনে স্বাক্ষরিত স্টিকার ব্যবহার করতে দিয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved  2020 Daily Surjodoy
Theme Customized BY CreativeNews