1. dailysurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
সরকার অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজে বেড়াচ্ছে : ডা: জাফরুল্লাহ
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৯:৩২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
আশুলিয়ায় পোশাক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা পটুয়াখালী শহরে চরপাড়ায় হঠাৎ বজ্রপাতে একজনার মৃত্যু শিশুসহ আহত কয়েকটি পরিবার সারাদেশে শিক্ষক নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদ কুড়িগ্রামে শিক্ষক সংগঠনদের মানববন্ধন ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বন‌্যা দুর্গত মানু‌ষের কল‌্যা‌নে মানবতার উপহার নি‌য়ে ফেনী নোয়াখালীর যুবকরা আ‌বা‌রো সি‌লে‌টে কুড়িগ্রামে জেলা পর্যায়ে অগ্রগতি পর্যালোচনা ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত গঙ্গাচড়ায় ৫৩ পিচ ফেন্সিডিল সহ মাদক আমিনবাজার ইউপি বেদখল হয়ে যাওয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাঁর জমি উদ্ধার শিক্ষক হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে কুড়িগ্রামে সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রাজিবপুর উপ‌জেলা চেয়ারম‌্যান গ্রেফতার চিলমারীতে জাকের পার্টির ত্রাণ বিতরণ

সরকার অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজে বেড়াচ্ছে : ডা: জাফরুল্লাহ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন, ২০২০, ৩.৫৬ পিএম
  • ৮৮ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকার অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজে বেড়াচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, করোনা সমস্যার কিভাবে সমাধান হবে সেটা সরকারের চিন্তার মধ্যে নেই।
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা থেকে মুক্তি পাওয়ায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

রাজধানীর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের গেরিলা কমান্ডার মেজর এ টি এম হায়দার বীর উত্তম মিলনায়তনে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, করোনা মোকাবেলায় সরকারের কোন চিন্তাভাবনা নেই। সরকার একটি অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজে বেড়াচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এখনো মূল প্রবাহ আসেনি। আসবে এ মাসের পরে। যখন গ্রামগঞ্জে ছড়িয়ে পড়বে।
তিনি বলেন, জাতীয় ঔষধ নীতির নিয়ম বদলালে ওষুধের দাম অর্ধেক হবে। এজন্য সুস্থ স্বাস্থ্য ব্যবস্থা দরকার। এটা জনদাবি উঠানো ছাড়া সম্ভব না। এর পরিবর্তনের জন্য জনগণের পক্ষ থেকে আওয়াজ আসতে হবে।

আলোচনা সভায় ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরীর চিকিৎসক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মামুন মোস্তাফি বলেন, জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা নেগেটিভ হলেও বুকের ৮০% নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। গ্রামের একজন মানুষ ও কৃষক যে সেবা নিতে পারেন না তিনি তা গ্রহণ করেন না। ওনার করোনা বিজয়ী হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় শক্তি হলো তার মনোবল। আমরা ঢাকা মেডিকেলে তার জন্য কেবিন রেডি করেছিলাম। কিন্তু তিনি বলে দিয়েছেন, ওখানে থেকে আমার গ্রামের একজন মানুষ চিকিৎসা নিতে পারবে না, আমিও নিবো না। গ্রামের কোনো মানুষের এখানে থেকে মৃত্যু হলে আমারও হবে।

ডা. মামুন মোস্তাফি আরো বলেন, ডা: জাফরুল্লাহ আমার ৩৫ বছরের চিকিৎসা জীবনে সবচেয়ে ডিফিকাল্ট পেশেন্ট। আমি তার চিকিৎসা করার সুযোগ পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেছি।

এসময় তিনি আরো বলেন, ডায়লোসিস রোগিদের করোনা হলে চিকিৎসা দেয়ার মতো হাসপাতাল বাংলাদেশে নেই। তবে এখানে বড় ভাই ডায়ালাইসিস রোগীদের করোনা চিকিৎসার জন্য আইসিইউসহ সম্পূর্ণ সুযোগসুবিধা সম্পন্ন একটি ইউনিট তৈরী করেছেন।

ডা: মোস্তাফি বলেন, বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের সাথে যে তার একাত্মবোধ তা আমি আর কারো মাঝে দেখিনি। তার প্রতি দেশের মানুষের যে ভালোবাসা ছিলো তা সোশ্যাল মিডিয়াতে ঢুকলে দেখা যায়। প্রতিটা মানুষের দোয়া ছিলো আল্লাহ তুমি এই মানুষটাকে বাঁচিয়ে রাখো।

ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সহধর্মীনি শিরিন হক বলেন, উনার প্রতি মানুষের যে অগাধ ভালোবাসা সে বিষয়ে কোনো প্রশ্ন উঠতে পারে না। আমরা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved  2020 Daily Surjodoy
Theme Customized BY CreativeNews