1. dainiksurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
  2. editor@surjodoy.com : Daily Surjodoy : Daily Surjodoy
সাভারের আশুলিয়ায় চেতনানাশক খাইয়ে নারীকে ধর্ষণ, এক ভন্ড কবিরাজ গ্রেপ্তার
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
বৃহস্পতিবার সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা স্বামীর কর্মস্থল ইসলামী ব্যাংকের সামনে অনশনরত স্ত্রীর বিষপান, পুলিশ সদস্যদের ভূমিকায় উদ্বিগ্ন দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন থেকে সরে যাব না, কফিন ধরে শিক্ষার্থীদের শপথ সংস্কার আন্দোলন সাধারণ ছাত্রদের হাতে নেই, এর নেতৃত্বে এখন ছাত্রদল-ছাত্রশিবি : কাদের চট্টগ্রামে কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে মহানগর বিএনপির গায়েবানা জানাজা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিজিবি মোতায়েন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আজ পবিত্র আশুরা, কারবালার ‘শোকাবহ এবং হৃদয় বিদারক ঘটনাবহুল দিন চট্টগ্রামে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সঙ্গে যুবলীগ-ছাত্রলীগের সংঘর্ষে নিহত ৩ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বিবেচনায় স্কুল-কলেজ-পলিটেকনিক বন্ধ ঘোষণা

সাভারের আশুলিয়ায় চেতনানাশক খাইয়ে নারীকে ধর্ষণ, এক ভন্ড কবিরাজ গ্রেপ্তার

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২৩, ৫.৩৪ পিএম
  • ৮৯ বার পঠিত
  • মোঃ বাবুল শেখ 

ঢাকার আশুলিয়ায় ভাতের সঙ্গে চেতনানাশক খাইয়ে এক নারীকে ধর্ষণ ও চার লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ভন্ড কবিরাজকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

 

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) অমিতাভ চৌধুরী অমিত। এর আগে, রবিবার নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার সুন্দর খাতা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

গ্রেপ্তারকৃত আসামি হলো মো. লাল চাঁন মিয়া (৩৮) নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার ভাটিয়াপাড়া এলাকার মৃত কাদের পাশারীর ছেলে। তিনি নারী-পুরুষের বিভিন্ন রোগের ঔষধ দেওয়ার নাম করে দীর্ঘদিন যাবত মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছিলো। ঘটনার পর থেকে লাল চাঁন নীলফামারী জেলার বিভিন্ন জায়গায় আত্মগোপনে ছিলো।

 

পুলিশ ও মামলা সুত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ও তার স্বামীসহ ভন্ড কবিরাজ লাল চাঁন মিয়ার গ্রামের বাড়ী একই এলাকায় হওয়ায় তাদের সাথে সু-সম্পর্ক গড়ে উঠে। লাল চাঁন নিজেকে কবিরাজ হিসেবে উপস্থাপন করায় ভুক্তভোগীদের তিনি কবিরাজি ঔষধপত্র দিয়ে আসতে থাকেন।

 

গত ৩০ সেপ্টেম্বর কবিরাজি চিকিৎসা দিতে নীলফামারী থেকে আশুলিয়ায় ভুক্তভোগীর বাসায় আসেন লাল চাঁন। এরপর গত ২ অক্টোবর রাত ৯টায় কবিরাজি ওষুধের কথা বলে স্বামী-স্ত্রীকে ভাতের সাথে চেতনানাশক ঔষধ মিশিয়ে দেন। পরদিন ৩ অক্টোবর সকাল ৯টার দিকে পাশের রুমের ভাড়াটিয়ারা এসে স্বামী-স্ত্রীকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান। এসময় ভুক্তভোগীর শরীরে পরিহিত কাপড় এলোমেলো অবস্থায় দেখা যায়। পরে চোখেমুখে পানি ছিটিয়ে দিলে তাদের জ্ঞান ফিরে।

 

এসময় ভুক্তভোগী বুঝতে পারেন যে, কবিরাজি চিকিৎসার নামে চেতনানাশক ঔষধ খাইয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে লাল চাঁন তাকে ধর্ষণ করেছেন এবং যাওয়ার সময় ওয়ারড্রপের ড্রয়ারে রাখা তার স্বামীর নগদ চার লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছেন। পরবর্তীতে লাল চাঁনের সাথে মোবাইলফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে ভুক্তভোগীসহ তার স্বামীকে বিভিন্ন ভয়ভীতিসহ হুমকি প্রদান করেন।

 

এ ঘটনায় গত ৯ ডিসেম্বর মামলা দায়ের হলে আসামি গ্রেপ্তারের অভিযানে নামে পুলিশ। পরে রবিবার নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার সুন্দর খাতা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অমিতাভ চৌধুরী অমিত বলেন, আসামি বারবার স্থান পরিবর্তন করছিলেন। অবশেষে নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার সুন্দর খাতা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Comments are closed.

© All rights reserved  2020 Daily Surjodoy
Theme Customized BY CreativeNews