1. dailysurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
  2. editor@dailysurjodoy.com : Daily Surjodoy : Daily Surjodoy
  3. towhid472@gmail.com : Towhid Ahmmed Rezas : Towhid Ahmmed Rezas
সিলেটে টিকটকারদের তালিকা করছে পুলিশ, শীঘ্রই অ্যাকশন! 
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
রাজশাহী রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসেবে স্বীকৃতি পেলেন জয়পুরহাট সদর থানার ওসি আলমগীর জাহান ধামরাইয়ে মাকে মারধর করায় আপন ছেলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা বান্দরবান পাহাড়ে পর্যটকদের গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলি, ২ নারী আহত জাকারিয়া মানব কল্যাণ ট্রাস্টের ঘর পেয়ে খুশি দরিদ্র আছিয়া বেগম  ১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীরা পাবে ফাইজারের টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শত  শত কোটি টাকা আত্মসাৎ করা চট্টগ্রামের হায়দার ঢাকায় গ্রেপ্তার বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে ভয় পায়: কৃষিমন্ত্রী রাজশাহী নগর পুলিশের অভিযানে আটক -৩৩ র‍্যাবের অভিযানে দুই কেজি গাঁজা ও সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ আটক-২ রাজশাহীর পুঠিয়ায় কেঁচো কম্পোস্টে আগ্রহী চাষিরা বাড়ছে উৎপাদন

সিলেটে টিকটকারদের তালিকা করছে পুলিশ, শীঘ্রই অ্যাকশন! 

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১, ৩.২৫ এএম
  • ৪০ বার পঠিত

সিলেটে টিকটকারদের তালিকা করছে পুলিশ, শীঘ্রই অ্যাকশন!

জুয়েল খাঁন,জেলা প্রতিনিধি সিলেট

সিলেটসহ সারা দেশে ‘টিকটক’ ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে সম্প্রতি নানা ধরনের অপরাধের অভিযোগ উঠেছে। টিকটক ব্যবহার করে অপরাধ ঘটানোর দায়ে সারা দেশে মোট মামলা হয়েছে ১৩টি।

এর মধ্যে সিলেট মহানগর পুলিশের আওতাধীন শাহপরান থানায় ও সুনামগঞ্জে একটি করে মামলা হয়েছে। সিলেটসহ ১৩ মামলায় আসামি রয়েছেন ১০৫ জন।

জানা গেছে, সিলেটসহ সারা দেশে বাড়ছে ‘টিকটক’ করার নামে ধর্ষণ, নারী পাচার ও কিশোর অপরাধ। আশঙ্কাজনকহারে ছড়িয়ে পড়ছে অশ্লীলতা ও সামাজিক সহিংসতা। টিকটকের ফাঁদে পড়ে বিপথগামী হচ্ছেন উঠতি বয়সি মেয়েরা।

তবে সিলেটে যারা ‘টিকটক’ করার নামে নানা অপরাধ ঘটাচ্ছেন তাদের তালিকা তৈরি করছে পুলিশ। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) একটি বিশেষ মনিটরিং সেল তৈরি করে সেই সেলের অধীনে ডাটা তৈরি করছে। ডাটা তৈরির পরপরই সিলেটের ‘টিকটকারদের’ বিরুদ্ধে অ্যাকশনে নামবে পুলিশ।

সম্প্রতি সিলেটের জাফলংয়ে গিয়ে লাইকি ভিডিও করার কথা বলে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সিলেটের শাহপরাণ থানায় মামলা করেছেন ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর বাবা। এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। গত ১৯ মে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সিলেটসহ সারা দেশে বাড়ছে ‘টিকটক’ করার নামে ধর্ষণ, নারী পাচার ও কিশোর অপরাধ। আশঙ্কাজনকহারে ছড়িয়ে পড়ছে অশ্লীলতা ও সামাজিক সহিংসতা। টিকটকের ফাঁদে পড়ে বিপথগামী হচ্ছেন উঠতি বয়সি মেয়েরা।

তবে সিলেটে যারা ‘টিকটক’ করার নামে নানা অপরাধ ঘটাচ্ছেন তাদের তালিকা তৈরি করছে পুলিশ। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) একটি বিশেষ মনিটরিং সেল তৈরি করে সেই সেলের অধীনে ডাটা তৈরি করছে। ডাটা তৈরির পরপরই সিলেটের ‘টিকটকারদের’ বিরুদ্ধে অ্যাকশনে নামবে পুলিশ।

সম্প্রতি সিলেটের জাফলংয়ে গিয়ে লাইকি ভিডিও করার কথা বলে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সিলেটের শাহপরাণ থানায় মামলা করেছেন ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর বাবা। এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। গত ১৯ মে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, বিশেষ এই উদ্যোগ এবং অভিযান ছাড়াও যেখানেই টিকটক তৈরির নামে তরুণ-তরুণীরা অশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করবে সেখানেই বাধা দেবে পুলিশ। পাশাপাশি আইনানুগ ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে বেআইনি এমন কনটেন্ট প্রচার না করার ব্যাপারে সম্প্রতি টিকটকের সঙ্গে কথা বলেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তারা বাংলাদেশে টিকটক ব্যবহার করে অপরাধ সংঘটনকারীদের ব্যাপারে তথ্য চেয়েছে। সিআইডির অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক কামরুল আহসান গণমাধ্যমকে এ বৈঠকের কথা নিশ্চিত করেছেন।

সিআইডি সূত্র জানিয়েছে, সম্প্রতি ভারতের বেঙ্গালুরুতে নারী ও শিশু পাচারের ঘটনার পর থেকে সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করছে, এমন কর্তৃপক্ষগুলো টিকটকের সঙ্গে কথা বলার সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনও (বিটিআরসি) টিকটকের সঙ্গে কথা বলে। কিছু অপরাধের তদন্ত নিয়ে সিআইডি টিকটকের সঙ্গে জুম মিটিংয়ে বসে। ওই বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে, এ দেশের আইনে বৈধ নয় এমন কনটেন্ট আপলোড করার ক্ষেত্রে যত্নবান হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়।

সিআইডি সূত্র জানায়, টিকটককে বেআইনি কাজের তথ্য সরবরাহে অনুরোধ করেছে তারা। উদাহরণ হিসেবে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের কথা বলেছে সিআইডি। এ আইনে কিছু বিষয়কে পর্নোগ্রাফির উপাদান বলে নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। অন্যান্য অপরাধের ক্ষেত্রেও বাংলাদেশের আইন অন্যান্য দেশের আইনের চেয়ে আলাদা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের টিকটকাররা আইন ভঙ্গ করছেন কি না, সেদিকে নজর রাখার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি ওই সূত্র আরও জানায়, টিকটক কর্তৃপক্ষের মনোভাব ইতিবাচক। তারা আরও জানিয়েছে, টিকটকের একটি কমিউনিটি গাইডলাইন রয়েছে। সেই নির্দেশিকা বাংলায় অনুবাদ করা হচ্ছে।

টিকটকের পক্ষে ওই বৈঠকে প্রতিষ্ঠানটির দক্ষিণ ও দক্ষিণ–পূর্ব এশিয়ার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর মহিদ বানসাল নেতৃত্ব দেন। এর বাইরেও ওই বৈঠকে আরও দুজন উপস্থিত ছিলেন। তাদের একজন আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক ও অপরজন আইনগত বিষয় দেখভাল করেন। এর আগে বাংলাদেশ কয়েকজন টিকটক ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়েও পায়নি।

টিকটক চীনা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্সের নিয়ন্ত্রণাধীন। একসময় এর গ্রাহক তালিকার বড় অংশ ছিল ভারতে। সেন্সরটাওয়ারের হিসাবে ভারত টিকটকের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার পরও এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে ৩০০ কোটি আইডি থেকে এটি ব্যবহৃত হচ্ছে। ২০২১ সালের প্রথম ছয় মাসে ৩৮ কোটি ৩০ লাখ গ্রাহক প্রথমবারের মতো এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছেন। ফেসবুক ও ফেসবুক–সংশ্লিষ্ট অ্যাপ, যেমন মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রামের পরই এখন টিকটকের অবস্থান।

সিলেটসহ সারা দেশে ১৩ মামলা, আসামি ১০৫ :

পুলিশ সদর দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, টিকটক ব্যবহার করে অপরাধের দায়ে মামলা হয়েছে ১৩টি। এর মধ্যে ঢাকার বাইরে রাজশাহীতে দুটি এবং সিলেট মহানগর পুলিশের আওতাধীন শাহপরান থানা, সুনামগঞ্জ ও বরগুনায় একটি করে মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আটজন গ্রেপ্তার হয়েছেন। আসামি ১০৫ জন।

প্রথম মামলাটি হয়েছিল আলোচিত টিকটকার ইয়াসিন আরাফাত অপুর বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে মারধর ও বেআইনি সমাবেশের অভিযোগ উঠেছিল। বেশ কিছুদিন জেল খেটে বের হওয়ার পর তিনি এখন আবার টিকটকে সক্রিয় হয়েছেন। এরপর টিকটকারদের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে চারটি, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে পাঁচটি এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তিনটি মামলা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved  2020 Daily Surjodoy
Theme Customized BY CreativeNews