1. dailysurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
  2. editor@dailysurjodoy.com : Daily Surjodoy : Daily Surjodoy
  3. towhid472@gmail.com : Towhid Ahmmed Rezas : Towhid Ahmmed Rezas
নীলফামারী কিশোরগঞ্জে মিষ্টি কুমড়া চাষ করে চাষিরা বিপাকে !
রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন

নীলফামারী কিশোরগঞ্জে মিষ্টি কুমড়া চাষ করে চাষিরা বিপাকে !

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ১২.৩৭ পিএম
  • ৩৭ বার পঠিত

রেখা মনি,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার মিষ্টি কুমড়া চাষ করে বিপাকে পড়েছে কুমড়া চাষিরা । ক্রেতা না থাকায় উৎপাদিত মিষ্টি কুমড়া ক্ষেতেই নষ্ট হতে বসেছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ৩ থেকে ৫ টাকা কেজি দরে ক্রয় করেছেন।
বাধ্য হয়ে আসল টাকা উঠানোর জন্য ওই দামে কুমড়া বিক্রি করছেন ফলে চার মণ মিষ্টিকুমড়া বিক্রি করে এক কেজি গরুর মাংস কিনতে পারছে না চাষিরা।জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ উপজেলার চাষিরা আগাম আলু চাষের উপর পতিত জমিতে ভুট্টা চাষ করে থাকেন।
কিন্তু এবার কৃষি বিভাগের উৎসাহে বিস্তর জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করেছেন কৃষকরা। কৃষকরা জানিয়েছেন করোনাকালীন সময়ে কৃষি প্রণোদনার আওতায় কৃষি অফিস থেকে বিনামূল্যে কুমড়ার বীজ ,সার ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপকরণ বিতরণ করে কৃষি বিভাগ।বড়ভিটা ইউনিয়ন এর বাবুর ডাঙ্গার কুমড়া চাষে  আবেদ আলী জানান ,
অতিরিক্ত লাভের আশায় এবং কৃষি অফিসের পরামর্শ এবার চার বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করি।সাত বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করি সঠিক পরিচর্যার কারণে কুমড়া ফলনও হয়েছে দ্বিগুণ। তিনি আরো জানান ৪ বিঘা জমিতে কুমড়া চাষ করে রাসায়নিক সার,
কীটনাশক সেচ এবং শ্রমিক বাবদ ব্যয় হয়েছে ৮০ হাজার টাকা। কিন্তু কোনটা বিক্রি করেছি তিন থেকে পাঁচ টাকা কেজি দরে। ফলে আমার আসল থেকে ৪০হাজার টাকা লোকসান। বাহাগিলি ইউনিয়নের কুমড়া চাষী সামিউল ইসলামের একই অবস্থা।
পুটিমারি ইউনিয়নের কুমড়া চাষে জাহিদুল ইসলাম বলেন, আমি তিন বিঘা জমিতে কুমড়া চাষ করে সর্বশান্ত হয়েছি। তাই কুমড়া ক্ষেত নষ্ট করে জমিতে আবার ভুট্টা চাষ করেছি।
নিতাই ইউনিয়নের কাছারির হাট গ্রামের কুমড়া চাষে সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি দুই বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করেছি।গতকাল প্রতিমণ কুমড়া ১২০ টাকা দরে বিক্রি করেছি ।
সে অনুযায়ী চার মণ মিষ্টি কুমড়া বিক্রি করে এক কেজি মাংস ক্রয় করতে পারছিনা।কিশোরগঞ্জ উপজেলা উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা আজিজার রহমান বলেন ,নিরাপদ সবজি উৎপাদনের জন্য কৃষি বিভাগের সহযোগিতা ও পরামর্শ কারণে এবার মিষ্টি কুমড়ার ব্যাপক ফলন বৃদ্ধি পেয়েছে।কিন্তু দাম না থাকায় এসব ফসলের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেনা ।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান বলেন, এবার কিশোরগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩০০ একর জমিতে কুমড়া চাষ হয়েছে। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শ এবার মিষ্টি কুমড়ার ব্যাপক ফলন হয়েছে।কিন্তু করো না পরিস্থিতির কারণে বাহির থেকে ক্রেতা না আসায় কৃষক সঠিক দাম পাচ্ছে না ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved  2020 DailySurjodoy.Com
Theme Customized BY CreativeNews