1. dailysurjodoy24@gmail.com : admin2020 : TOWHID AHAMMED REZA
ঈদের জামাত শেষে জুতা বদল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় নিহত ১, পুলিশসহ আহত ২০
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাভার উপজেলার নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২ জনসহ মোট ১১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন ভিজিডি কাড না দেওয়ায় সৈয়দপুর পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও পথসভা নৈতীক স্খলন ও সিমাহীন আর্থিক অনিয়মের প্রতিবাদে সৈয়দপুর পৌর মেয়রের অপসারনের দাবীতে \ সংবাদ সম্মেলন টেলিভিশন ক্যামেরা র্জানালিস্ট অ্যাসোসয়িশেন (টিসিএ) নেতৃত্বে   সোহলে ও জুয়েল কলাতিয়া বাজারের যানজট ও ফুটপাত দখল মুক্ত করলেন কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ি “বাংলাদেশ সূফী ফাউন্ডেশন পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে রমজান মাসে যাত্রা শুরু করবে” নীলফামারীতে উৎসবমুখর পরিবেশে চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নীলফামারী টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের আহবায়ক কমিটি গঠন এস আই আল মামুন এর বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হয়েছে – ভুক্তভোগী সজল কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন ৭ই মার্চ

ঈদের জামাত শেষে জুতা বদল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় নিহত ১, পুলিশসহ আহত ২০

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৩, ৬.১২ এএম
  • ৮৭ বার পঠিত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার সদর ইউনিয়নের মাইজখলা গ্রামের মসজিদের সামনে ঈদের জামাত শেষে গ্রামের দু’পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত এবং ২ জন পুলিশ সদস্যসহ উভয়পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ১৬ জনকে আটক করেছে। নিহতের নাম মো. আবুল কাশেম(৩০)। তিনি মাইজখলা গ্রামের মো. ইদ্রিছ আলীর ছেলে।

 

শনিবার (২২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টায় মাইজখলা গ্রামের মসজিদের সামনে খালের পাড়ে দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনাটি ঘটে।

 

 

খবর পেয়ে দোয়ারা বাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় একঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় পুলিশ ১৬ জনকে আটক করেন।

 

 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ৯টায় মাইজখলা গ্রামের মসজিদে ঈদের জামাত শেষে জুতা পরিবর্তন নিয়ে মাইজখলা গ্রামের শাহ নেওয়াজের ছেলে জালাল শাহ (৪৫)’র সাথে একই গ্রামের মৃত কমর উদ্দিনের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৫) এর কথা কাটাকাটি হয়। এরই জেরে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে খালের পাড়ে সেলিম মিয়ার বাড়ির সামনের পতিত জমিতে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে ২ জন পুলিশ সদস্যসহ উভয়পক্ষের ২০ জন আহত হন।

 

এদের মধ্যে জালাল শাহ’র পক্ষের মো. আবুল কাশেমসহ বেশ কয়েকজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর আজ বিকেলে আবুল কাশেম মারা যান। এছাড়াও উভয়পক্ষের আহতদেরকে দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

 

পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান নিয়ে ১৬ জনকে আটক করেছে।

 

এ ব্যাপারে দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেব দুলাল ধর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এই ঘটনায় উভয়পক্ষের ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Comments are closed.

© All rights reserved  2020 Daily Surjodoy
Theme Customized BY CreativeNews